একগুচ্ছ কবিতা/ সৌগত রাণা কবিয়াল

/কিয়দংশ সাফল্য/ 'বৈকল্য', স্পষ্টত পুঁজিবাদ বাসা বেঁধেছে তোমার মনের হিসেবে.. তুমি হিসেব করে দেবতা আর তোমার মধ্যে একটি চাতুর্য পূর্ণ আঁতুড়ঘর তৈরী করে রাখো.... সেখানে স্যাঁতসেঁতে ভেজা শরীর নিয়ে জন্ম…

বিস্তারিত

লায়লা মুন্নীর কবিতাগুচ্ছ

"অনাহূত" এক অনাহূত পথচলা, এক অনাহূত পথে আমার শব্দেরা হেঁটে যায়। নিঃশব্দে হেঁটে যায়---- প্রতিটি পদচিহ্নে কোন প্রমান থাকেনা। কোন শব্দবাহুল্যতা নয়, কেবল হেঁটেচলা ..... এ অনাহূত পথচলায় প্রাণশক্তি পদদলিত…

বিস্তারিত

সারা ফেরদৌস এর একগুচ্ছ কবিতা

লোপাট লোপাট হচ্ছে মানবী পুতুল খোঁপার ফুল, কানের দুল, শুভ্র সাদা শাড়ির আঁচল ! আগুন ফুলের গল্প মনে আছে-- আগুন ফুলের গল্প ! গ্রাম্য রাস্তায় এক পশলা বৃষ্টিতে ভেজা আগুন…

বিস্তারিত

সাদিয়া জাফরিনের কয়েকটি কবিতা

গুল্মটির গল্প তোমার ধূসর কল্পতরু বেয়ে আমার চারুলতা আর মেঘ ছোয়ার স্বপ্ন দেখবেনা, কথা দিয়েছিলাম। বৃষ্টি জল কি তা জানতো? সে তো তোমায় নাইয়ে আমার কড়িতেই জমে। আমি সেই গুল্মটি…

বিস্তারিত

দুর্জয় আশরাফুল ইসলামের এক গুচ্ছ কবিতা

শব্দের জন্ম স্তব্ধ জলের উপর তোমার মুখ, চিত্রে অঙ্কিত সুন্দর, হলদে পাতা একটি ঝরে পড়লে পিয়ানো মতো বাজে তরঙ্গরূপ, শব্দের নিখিল জন্ম – যেন সে ছবির থেকে, নির্জন বিকেলবেলা, এই…

বিস্তারিত

সুস্মিতা চক্রবর্তীর এক গুচ্ছ কবিতা

মানুষ অথবা পথ কোথা থেকে এসে-যায় কোথা কোন্ দূর সমতল থেকে আসা পাহাড়ের পুর! পথে পথে পড়ে থাকা বুনোফুল ধুলোমাখা হুঁ হুঁ করা তামাবিল শান্ত দুপুর। দেখা যায় উঁচু করে…

বিস্তারিত

তাসনিম সোনালির কবিতা

হঠাৎ তুমি হঠাৎ যদি দরজা খুলে বৃষ্টি রোদের আগল ঠেলে থমকে সময় দেখা মেলে আসলে তুমি স্বপ্ন রেলে।। তাইতো চোখে ইচ্ছে আঁকি দাও দেখি দাও কেমনে ফাঁকি লেনাদেনা অনেক বাকি…

বিস্তারিত

পিয়াস মজিদের কবিতা :: গোলাপের অভিঘাত

গোলাপের অভিঘাত একটি গীতিময় মৃত্যুর মোহে কাটাই গদ্যধূসর জীবন শীতার্ত ঝংকার, কুয়াশাকণ্ঠের পর আছে রংধনুর নদী। কৃষ্ণবসন্তের হাওয়া এলোমেলো করে দেয় স্বপ্নসব। পথে পথে কত লালগালিচা ভর্ৎসনা তবু সন্তপ্ত নক্ষত্রের…

বিস্তারিত

সুলতানা ফিরদৌসীর কবিতা

আবহমান বৃক্ষ থেকে পাখি, তোমার স্বপ্ন তোমারই থাক! তোমার বাড়ির ফুলের মালি সন্ধ‍্যা সকালে, আড়ালে আবডালে বৃক্ষ ছিঁড়ে ফেরে। কাঁচা বাঁশের ডালে, বুকের খাঁচায়   দুলছে টিয়া পাখি, সেই সময়ে বৃক্ষেরা…

বিস্তারিত

দিলারা হাফিজের এক গুচ্ছ কবিতা

  বাইশে শ্রাবণ বাইশে শ্রাবণকে কাছে ডাকতে নেই, দূরেই তাকে মানায় ভালো, কাছে এলে কেমন যেন হুলুস্থুল বেঁধে যায় পাওয়া জিনিশ হারিয়ে যায় খানিক বাদেই; দূরে দাঁড়িয়ে দেখো সব কিছু কেমন দেখতে ভালো জানাশোনায় আলগে রাখে পথ; এখানে বসেও আজ দেখতে পাই শান্তনিকেতন ভুবন ডাঙ্গা, রতন পল্লী জোড়াসাঁকো যেমন আছে, তেমনি থাক কাদম্বরির জল বাতাসে পৌষমেলায় ছড়ানো ছিটানো  সে সকল তৈজষ পত্র মেলার মাঠে কাঁদছে কী খুব? ছাতিমতলার শূন্য বাগান ভর দুপুরে উদাস ভীষণ?” মাটির তৈরী ‘শ্যামলী’গৃহে দেখো তো দেখি, পরিপাটি কোল বালিশটি উল্টে আছে আজ এই সুবাদের দু:খগুলো ম্যাগপাইস পাখির মতো  চন্চুতে আজ লুকিয়ে পড়ে বেশ তুমি ছাড়া পাশে আর কেউ নেই যার তাঁকে তুমি কি বলবে আজ, বলো? মানুষ   মানুষের পিপাসারা ঐ আলোকবর্ষ  ছুঁতে পারে, ছুঁতে পারে হিমাঙ্কের নিচে থাকা অচেনা কুসুম …

বিস্তারিত

আয়শা ঝর্নার অনুবাদ কবিতা

অ্যান স্যাক্সটনের কবিতা অ্যান স্যাক্সটন ইংরেজি সাহিত্যে এক অবিস্মরণীয় নাম। নিউইয়র্কের ম্যাসচুসেটস এ ১৯২৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন। বস্টন এবং ব্র্যান্ডিস ভার্সিটি থেকে পাস করে ১৯৫৭ সাল থেকে লিখতে শুরু করেন।…

বিস্তারিত

- সমাপ্ত -

এই পর্যন্তই ছিল